Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Popular Posts

Breaking News:

latest

দুঃস্থ ও পিছিয়ে পড়া শতাধিক শিশুদের শিক্ষামূলক ভ্রমণের উদ্যোগ নিল কাজলা জনকল্যান সমিতি !



পূর্বমেদিনীপুর.ইন : কাজলা জনকল্যাণ সমিতির দক্ষিণ ২৪পরগনা শাখা অফিসের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার ৩৫০জন কিশোর কিশোরীদের নিয়ে কলকাতার সায়েন্স সিটিতে করানো হল শিক্ষামূলক ভ্রমণ।

এই শিশুরা সমাজে নানাভাবে পিছিয়ে থাকার ফলে এদের কাছে পড়াশুনার গুরুত্বও ভীষণ কম। কোনওভাবে স্কুলে যাওয়া অথবা অনিয়মিত স্কুল, দুবেলা দুমুঠো খাবারের জন্য জরি শ্রমিকের কাজ করে থাকে।

এদের সার্বিক বিকাশের জন্য এবং এরা যাতে সমাজের মূলস্রোত থেকে হারিয়ে না যায় সেই লক্ষ্যেই কাজলা জনকল্যাণ সমিতি এদের নিয়ে প্রতিটি গ্রামে দল তৈরি করে জীবন কুশলতার নানা বিষয়ে নিয়মিত শিক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে।


পুঁথিগত শিক্ষাকে তাদের দৈনন্দিন জীবনের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনের জন্য দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার মগরাহাট-২নং ব্লকের মোহনপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার হাইস্কুলগুলোতে পাঠরত প্রায় ৩৫০ জন (১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী) ছেলে মেয়েদের নিয়ে সারাদিন ধরে কোলকাতার সায়েন্স সিটি দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়।

কোলকাতা সায়েন্স সিটির পক্ষ থেকে এই শিশুদের সম্পূর্ণ বিনা খরচে সবকিছু ঘুরিয়ে দেখানোর ব্যবস্থা করা হয় এবং এরা যাতে পড়াশুনায় উৎসাহী হয় তার জন্য প্রত্যেককে সায়েন্স সিটির পক্ষ থেকে উপহার প্রদান করা হয়।

কিশোর কিশোরীদের মধ্যে এই শিক্ষামূলক ভ্রমণকে কেন্দ্র করে যথেষ্ট উৎসাহ লক্ষ্য করা যায়। এদের মধ্যে সায়েমা খাতুন, আমিনা খাতুন, কেয়া সরদার, শরিফুল শেখ বলে এই প্রথম আমরা এমন বেড়ানোর সুযোগ পেলাম, যা দেখলাম তা স্বপ্নেও ভাবিনি। আমরা এই অভিজ্ঞতা কে পড়াশুনার কাজে লাগাবো।

কলকাতা সায়েন্স সিটির শিক্ষা আধিকারিক শ্রী পার্থসারথি সাহা ও তার সহকর্মীরা শিশুদের এই শিক্ষা মূলক ভ্রমণকে বাস্তবায়িত করতে অগ্রণী ভূমিকা গ্রহণ করেছেন এবং শিশুদের উৎসাহ প্রদানের জন্য নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন।

কাজলা জনকল্যাণ সমিতির কো অর্ডিনেটর বিবেকানন্দ সাহু বলেন, শিশুদের স্কুলে ধরে রাখতে হলে শুধু পড়ার ওপরে জোর দিলেই হবে না, বাস্তবের সঙ্গে তার মেলবন্ধন ঘটাতে হবে। সেই সঙ্গে বিজ্ঞান মুখী করে তুলতে ছাত্রছাত্রীদের। আর এই কারনেই সায়েন্স সিটির মতো বিভিন্ন স্থানে ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে দেখানো একান্ত জরুরি।

এই ধরনের ভ্রমণের ফলে শিশুরা পড়াশুনায় উৎসাহিত হয়েছে, আর এতেই আমরা খুশি। এতোজন শিশুকে নিয়ে যেতে যারা এগিয়ে এসেছেন তারা হলেন বগবুল ইসলাম মল্লিক, বাবলু আলি শেখ, আব্দুল আউল মোল্লা, অনাথবন্ধু হালদার, রাখি পুরকাইত, বাঁকিবুল ইসলাম মল্লিক,  পঞ্চায়েত সদস্যা সোফিয়া মন্ডল প্রমুখ। সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তি, অভিভাবক ও মোহনপুর গ্রাম পঞ্চায়েত।

No comments