Page Nav

HIDE

Grid Style

GRID_STYLE

Post/Page

Popular Posts

Breaking News:

latest

*সাত সকালে দিঘা নন্দকুমার জাতীয় সড়কে ৪টে গাড়ির সংঘর্ষ, মৃত ৩ আশংকাজনক একাধিক !

নরঘাট, পূর্ব মেদিনীপুর : সাত সকালেই ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটল দিঘা নন্দকুমার ১১৬বি জাতীয় সড়কের চন্ডীপুর থানার দক্ষিণ নরঘাট এলাকায় ৪টি গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এর মধ্যে রয়েছে খেজুরি থেকে হাওড়া গামী যাত্রী বোঝাই বাস, চন্ডীপুর গামী স…

 


নরঘাট, পূর্ব মেদিনীপুর : সাত সকালেই ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটল দিঘা নন্দকুমার ১১৬বি জাতীয় সড়কের চন্ডীপুর থানার দক্ষিণ নরঘাট এলাকায় ৪টি গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এর মধ্যে রয়েছে খেজুরি থেকে হাওড়া গামী যাত্রী বোঝাই বাস, চন্ডীপুর গামী সব্জী বোঝাই ট্রাক, মাল বোঝাই গাড়ি ও একটি প্রাইভেট কার। এই ঘটনায় দুটি ট্রাক সম্পূর্ণ দুমড়ে মুচড়ে যায়। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনার জেরে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে তমলুক হাসপাতাল সূত্রে খবর, মৃতপ্রায় আরও ২ জন। বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশংকাজনক। তবে মৃত ও আহতদের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। 

চন্ডীপুর থানা সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টা টা নাগাদ নরঘাট ব্রিজের কিছুটা আগে পেট্রল পাম্পের কাছে রাস্তার বা্ঁকের মুখে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটে। সে সময় গাড়িগুলি প্রচন্ড গতিবেগে থাকায় দুর্ঘটনার ক্ষয়ক্ষতি অনেক বেশী হয়েছে। ঘটনার খবর পেয়েই ছুটে আসে চন্ডীপুর থানার পুলিশ। গাড়ি থেকে আহতদের নামিয়ে আনার পর তাঁদের দ্রুত তমলুক জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সেখানেই ৩ জনকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করা হয়।

ঘটনাস্থলের চিত্র দেখে পুলিশের অনুমান প্রথমে বাস ও সব্জি বোঝাই ট্রাক মুখোমুখি ধাক্কা খায়। এরপর বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কিছুটা এগিয়ে এসে আরও একটি মাল বোঝাই ট্রাককে ধাক্কা মারে। সেই সময় পাশে থাকা একটি প্রাইভেট গাড়িও দুই গাড়ির মাঝে ঢুকে পড়ে বেশ খানিকটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর জেরে সব্জি বোঝাই গাড়িটি প্রায় গুঁড়িয়ে যায়। এচারাও মাল বোঝাই গাড়ির চালক ভেতরের আটকা পড়ে যান। এছাড়াও বাসের একাধিক যাত্রী জখম হন।

এই দুর্ঘটনার জেরে বেশ কিছুটা সময় অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে গুরুত্বপূর্ণ দিঘা নন্দকুমার জাতীয় সড়ক। তবে পুলিশ তৎপরতার সঙ্গে আহতদের উদ্ধারের পর দুর্ঘটনাগ্রস্ত গাড়িগুলিকে সরিয়ে রাস্তা পরিষ্কার করে দেয়। পুলিশ সূত্রে খবর, এই দুঘটনায় একাধিক ব্যক্তির আঘাত বেশ গুরুতর। তাই মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

No comments